স্বপ্নের ক্রিকেটারের সঙ্গে দেখা

মা-ছেলের ক্রিকেট খেলার কয়েকটি অনিন্দ্য সুন্দর ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, যা বিখ্যাত বানিয়ে দিয়েছে তাদের। গত শুক্রবার মাকে নিয়ে পল্টন ময়দানে ক্রিকেটান্দনে মেতে উঠেন ১১ বছর বয়সী শেখ ইয়ামিন আহমেদ সিনান।

সিনান মাকে বোলিং করছে, মা ঝর্ণা আক্তার চিনি দিব্যি ব্যাটিং করছেন। মাকে আউট করে ছেলের উদযাপন ও মায়ের বোলিংসহ আরো কিছু ছবি ক্রিকেটপ্রেমিদের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে। দারুণ সেই ছবিগুলোর প্রতি প্রত্যেকেই ভালোবাসা, শ্রদ্ধা প্রদর্শন করছেন।

সিনানের স্বপ্ন ক্রিকেটার হওয়া। তার স্বপ্নের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। ছোট্ট সিনানের সেই স্বপ্ন আজ পূরণ করলেন মুশফিকুর রহিম। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক বুধবার সকালে সিনানের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময়ে সিনানের মা ও বোন উপস্থিত ছিলেন।

ঝর্ণা আক্তার চিনি বলেন, ‘মুশফিকুর রহিম ভাই নিজের আগ্রহে আমাদের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছেন। এটা অন্য রকম অনুভূতি। তিনি এতো বড় একজন খেলোয়াড়…আমার ছেলে তাকে খুব পছন্দ করে ও অনুসরণ করে। তিনি এক জোড়া গ্লাভস, অটোগ্রাফসহ ব্যাট দিয়েছেন। উনার একটি জার্সিও দিয়েছেন। খুব ভালো লাগছে। আমার ছেলে খুব খুশি। কখনো কল্পনা করিনি আমার ছেলে মুশফিক ভাইকে এতো কাছ থেকে দেখবে।’

আরামবাগের এক মাদরাসায় চতুর্থ শ্রেণিতে পড়া সিনানকে নিয়ে বড় স্বপ্ন মায়ের। বুক ভরা আত্মবিশ্বাস নিয়ে বলেন, ‘ছেলেকে নিয়ে দুইটা স্বপ্ন দেখি। প্রথম স্বপ্ন আমার ছেলে কোরআনে হাফেজ হবে। দ্বিতীয়, আমার ছেলে আন্তর্জাতিক খেলোয়াড় হবে। একদিন বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলবে।’

সিনানদের পরিবার চারজনের। বাবা ও মা বাদে রয়েছে বড় বোন। ছেলেকে মাঠে নিয়ে আসার পাশাপাশি মাকে সামলাতে হয় সংসার। এজন্য করতে হয় অক্লান্ত পরিশ্রম। তবে পরিশ্রমের কোনো কষ্ট নেই বললেন মা ঝর্ণা, ‘মাঠে আসতে আমার অনেক কষ্ট হয়। ছেলে-মেয়ের পড়াশোনার পর আবার ছেলের ক্রিকেট খেলা। সংসারও আছে। তবুও আমার কোনো কষ্ট নেই। মা’রা সব পারেন।’