যুক্তরাষ্ট্রে মসজিদে হামলার কথা স্বীকার ২ যুবকের

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের একটি মসজিদে বোমা হামলার কথা স্বীকার করেছে হোয়াইট র‌্যাবিট নামের একটি উগ্রপন্থী সংগঠনের দুই সদস্য মাইকেল ম্যাকহোর্টার (২৯) ও জোই মরিস (২৩)। তারা স্বীকার করেছে মুসলিমদের মধ্যে ভীতি সৃষ্টি করতে তারা ২০১৭ সালে ওই বোমা হামলা করেছিল, যাতে মুসলিমরা যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে চলে যায়।

দু’টি বোমা হামলার চেষ্টা, সশস্ত্র ডাকাতি ও একটি রেলওয়ে কোম্পানি থেকে চাঁদাবাজিরও অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। পুলিশ বলেছে, ম্যাকহোয়ার্টার স্বীকার করেছে তার গ্রুপ হোয়াইট র‌্যাবিটস ২০১৭ সালের আগস্টে মিনেসোটায় দারুল ফারুক ইসলামিক সেন্টারে বোমা হামলা চালায়। এর উদ্দেশ্য ছিল মুসলিমদের জানানো যে, তাদেরকে যুক্তরাষ্ট্র চায় না। ওই বোমা হামলায় কেউ আহত হননি। তবে তাতে মসজিদটির ইমামের অফিসের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল।

পরে তা মেরামত করা হয় প্রায় ২০০ মুসল্লির সহায়তার ওপর ভিত্তি করে। কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশনসের মিনিয়াপোলিস চ্যাপ্টারের প্রধান জয়লানি হোসেন এমন তথ্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, অপরাধীরা যে দোষ স্বীকার করেছে তাতে মুসলিমরা স্বস্তি পেয়েছে। তবে ওই গ্রুপের বা অন্যান্য একই রকম গ্রুপের যেসব সদস্য রয়েছে, তাদের বিষয়ে উদ্বিগ্ন তারা। হোসেন বলেন, এসব উগ্রপন্থী গ্রুপ মুসলিম সম্প্রদায়ের বিষয়ে শূন্য সহনশীলতা নিয়েছে। তাদের অনেক ব্লগে মুসলিম সম্প্রদায়কে হুমকি হিসেবে বর্ণনা করা হচ্ছে। তারা মুসলিমদের হুমকি হিসেবে আখ্যায়িত করে তা নির্মূল করার কথা বলছে।

মসজিদে ওই বোমা হামলার মূল হোতা হোয়াইট র‌্যাবিটসের প্রতিষ্ঠাতা মাইকেল হ্যারি (৪৭)। সে কোথায় আছে, তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে কি না তা জানা যায়নি। তবে যুক্তরাষ্ট্রের মিডিয়া তাকে ইলিনয় রাজ্যের সাবেক একজন আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তা হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

উল্লেখ্য, মসজিদে ওই বোমা হামলা হয় ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্টের ক্ষমতায় আসার কয়েক মাসের মধ্যে। এতে মুসলিম আমেরিকানরা বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন এমন আশঙ্কা প্রকট হয়ে ওঠে। ঘৃণাপ্রসূত অপরাধ বৃদ্ধির বিষয়ও উঠে আসে রিপোর্টে।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Sidebar not configured yet. You can place widgets by navigating to WordPress Appearance > Widgets.

scroll to top