1. kaium.hrd@gmail.com : ময়মনসিংহ লাইভ ডেস্ক : ময়মনসিংহ লাইভ ডেস্ক
বোল্টের হ্যাটট্রিকে বিশাল জয় নিউজিল্যান্ডের
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১১:৫১ অপরাহ্ন

বোল্টের হ্যাটট্রিকে বিশাল জয় নিউজিল্যান্ডের

ময়মনসিংহ লাইভ কর্তৃক প্রকাশিত
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৮

টি২০ ক্রিকেটে হোয়াইটওয়াশ করলেও প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে বড় ব্যবধানে হেরে গেছে পাকিস্তান। বুধবার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে ৪৭ রানের জয় তুলে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। মূলত বাঁ হাতি ফাস্ট মিডিয়াম বোলার ট্রেন্ট বোল্টের হ্যাটট্টিকের সুবাদে ম্যাচে ধরাশায়ী হয় পাকিস্তান। ব্যাটিং ‘স্তম্ভ’ ফখর জামান, বাবর আজম ও মোহাম্মদ হাফিজকে সাজঘরে পাঠিয়ে তৃতীয় কিউই বোলার হিসেবে হ্যাটট্টিকের কৃতিত্ব অর্জন করেন বোল্ট।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে বুধবার দিবা-রাত্রির এই ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাংটিয়ের সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। ব্যাট হাতে কিউইরা ৯ উইকেটে ২৬৬ রান সংগ্রহ করে। পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪টি করে উইকেট নিয়েছেন শাহিন শাহ আফ্রিদি ও শাদাব খান। অপর উইকেটটি নিয়েছেন ইমাদ ওয়াসিম।

২৬৭ রানের জয়ের জন্য ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি পাকিস্তানের। মাত্র ৮ রানে বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ফখর জামান। পরের দুই বলে বাবার আজম ও মোহাম্মদ হাফিজকে যথাক্রমে কট ও এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে ফেলে ক্যারিয়ারে প্রথম হ্যাটট্টিকের স্বাদ নেন বোল্ট। মূলত এখানেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে পাকিস্তান।

দলীয় এক শ’ না পেরুতেই আরও তিন ব্যাটসম্যান ইমাম-উল হক, শোয়েব মালিক, শাদাব খানকে হারিয়ে পুরো চাপের মুখে পড়ে পাকিস্তান। তবে সপ্তম উইকেটে সরফরাজ আহমেদ ও ইমাদ ওয়াসিমের জুটি (১০৩ রানের জুটি) আশা দেখাতে থাকে পাকিস্তানকে। এ পর্যায়ে গ্র্যান্ডহোম সরফরাজ আহমেদকে বোল্ড করলে ফের কিউই শিবিরে স্বস্তি ফেরে। ব্যক্তিগত ৬৪ রানে সরফরাজের বিদায়ের পর ৫০ রান করে ফেরেন ইমাদ ওয়াসিম। ২১৯ রানে তার বিদায়ের পর ১৬ রান করা হাসান আলী এবং শাহীন শাহ আফ্রিদিও ফেরেন একই স্কোর বোর্ডে। তাতে ১৬ বল বাকি থাকতেই ৪৭ রানে জয় পায় নিউজিল্যান্ড।

নিউজটি শেয়ার করতে নিচের বাটনগুলোতে চাপ দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ
Mymensingh-IT-Park-Advert
Advert-370
Advert mymensingh live
©MymensinghLive
প্রযুক্তি সহায়তা: ময়মনসিংহ আইটি পার্ক