বাপকা বেটা : ধর্ষণের দায়ে যাবজ্জীবন আশারাম বাপুর ছেলেরও

নিজের মেয়ে, নাবালিকাসহ অন্য নারীদের ধর্ষণের দায়ে যাবজ্জীবন জেল খাটছেন ভারতের স্বঘোষিত গডম্যান আশারাম বাপু। এ বার তার মতো ধর্ষণের অভিযোগে একই ধরনের সাজা পেয়েছে তার ছেলে নারায়ণ সাইও।

গত শুক্রবার সুরাতের জেলা আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করেছিলেন। আশারাম বাপুর ছেলে নারায়ণ সাইসহ পাঁচজনকে এক ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত করেন আদালত। নারায়ণ ছাড়া অন্যরা হলেন ধর্মিষ্ঠা মিশ্র, ভাবিকা পাটেল, কুশল ঠাকুর এবং রমেশ মালহোত্রা। গতকাল মঙ্গলবার গুজরাটের সুরাটের ওই ধর্ষণের ঘটনায় নারায়ণের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দিয়েছেন গুজরাট আদালত।

ধর্ষিতা তার অভিযোগে আদালতে জানিয়েছিলেন, ২০০২ সাল থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত আশারাম বাপুর শিষ্য থাকা তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন নারায়ণ সাঁই। ওই নারী এবং তার বোন দুজনে মিলে পুলিশের কাছে ২০১৩ সালেই অভিযোগ দায়ের করেছিলেন।

ওই নারী অভিযোগ করেন, আশারাম বাপুর সুরাটের আশ্রমে থাকার সময় নারায়ণ সাই তাকে নিয়মিত যৌন হেনস্তা করতেন। ওই নারীর বোন জানান, ১৯৯৭ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত আমেদাবাদের আশারাম বাপুর আশ্রমে ছিলেন। সেই সময় আশারামের বিরুদ্ধেও একাধিকবার যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনেন তিনি।

২০০২ থেকে ২০০৫ সালের মধ্যে ভারতীয় দণ্ডবিধির আওতায় ধর্ষণ, অস্বাভাবিক যৌনতা, ষড়যন্ত্রমূলক অপরাধ, মারণাস্ত্র সাথে রেখে দাঙ্গা লাগানোর দায়ে ২০১৩ সালেই আটক করা হয় নারায়ণ সাইকে।

উল্লেখ্য, নারায়ণ সাইয়ের বাবা আশারাম বাপুর ওপরেও উঠেছিল বিকৃত যৌনাচারের অভিযোগ। নারায়ণের বড় বোন অভিযোগ করেছিলেন তার আপন বাবা তাকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছেন। এ ছাড়াও আশ্রমের আরও কিছু নারী অভিযোগ করেছিলেন, তাদেরকেও ধর্ষণ করেছেন আশারাম। ধর্ষণ করেন নাবালিকাদেরও।

এসব অভিযোগের শুনানিতে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবনের সাজা শোনান আদালত। এ মুহূর্তে যোধপুর জেলে যাবজ্জীবন কারাদ-ের শাস্তি ভোগ করছেন এই স্বঘোষিত ‘গডম্যান’।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top