বশেমুরবিপ্রবি ভিসির পদত্যাগ দাবি শাবি প্রেসক্লাবের

নারী সাংবাদিককে হেনস্তার ঘটনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি খোন্দকার নাসিরুদ্দিনের পদত্যাগ দাবি করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকেরা। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাব আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ দাবি জানান সাংবাদিক নেতারা।

প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জুনেদ আহমেদের সঞ্চালনায় ও সভাপতি জিয়াউল ইসলামের সভাপতিত্বে মানববন্ধন-পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য দেন কোষাধ্যক্ষ এনামুল হাসান নোমান ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক সরদার আব্বাস আলী। বক্তারা বলেন, ফেসবুক স্ট্যাটাসের জেরে একজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিসির স্বৈরাচারী মনোভাবের পরিচয় দেয়। ফেসবুকে কে কী লিখবে তা মনিটরিংয়ের দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়। মূলত পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রতিহিংসার শিকার বশেমুরবিপ্রবির সাংবাদিক ফাতেমাতুজ জিনিয়া বহিষ্কার ও ভিসি কর্তৃক হেনস্তার সম্মুখীন হয়েছেন। এর প্রতিবাদ জানালে অপর এক সাংবাদিকও হামলার শিকার হন। এতসব অপকর্মের পর ড. খোন্দকার নাসিরুদ্দিন ভিসির পদে থাকার নৈতিক যোগ্যতা হারিয়েছেন। এঘটনায় জড়িত দোষীদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান বক্তারা। এসময় তারা বশেমুরবিপ্রবি ভিসিকে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে পদত্যাগের আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, গত ২২ আগস্ট প্রতিবেদন তৈরীর জন্য ভিসির বক্তব্য নিতে তার কার্যালয়ে গেলে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসের সুত্র ধরে ভিসি কর্তৃক গালিগালাজ ও হুমকির শিকার হন ডেইলি সান পত্রিকার বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ফাতেমা তুজ জিনিয়া যার অডিও ক্লিপ পরে অনলাইনে ভাইরাল হয়। এরপর গত ১১ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত এক আদেশে ফাতেমা তুজ জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। তবে গত বুধবার প্রশাসন সেই বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলেও সাংবাদিককে হেনস্তার প্রতিবাদে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবাদ কর্মসূচির ঘোষণা দেয় বাংলাদেশ ক্যাম্পাস জার্নালিস্ট ফেডারেশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.