পদ্মায় হঠাৎ পানি বৃদ্ধিতে রাজবাড়ীর জৌকুড়া-নাজিরগঞ্জ রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

পদ্মা নদীতে নতুন করে হঠাৎ পানি ও স্রোত বৃদ্ধির ফলে রাজবাড়ীর জৌকুড়া ও পাবনার নাজিরগঞ্জ ঘাটের মধ্যে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল গত তিন দিন ধরে ব্যাহত হচ্ছে। ফলে দেশের দক্ষিণবঙ্গের সাথে উত্তরবঙ্গের সহজ পথে ও কম সময়ে যানবাহন ও জনসাধরণের নদী পার হচ্ছে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের ফেরি বিভাগ সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

নৌপথে রাজবাড়ী ও পাবনার সহজ যোগাযোগ মাধ্যম জৌকুড়া-নাজিরগঞ্জ নৌরুট। কিন্তু পদ্মা নদীর তীব্র স্রোতের কারণে তিন দিন ধরে এ রুটে দিনে মাত্র একবার ফেরি চলাচল করছে অতি ঝুঁকি নিয়ে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন এ রুট দিয়ে নদী পারাপার হওয়া যাত্রীরা। একই সাথে জনগণ ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে নদী পার হচ্ছে।

রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের তত্ত্বাবধানে রাজবাড়ী ধাওয়াপাড়ার জৌকুড়া ও পাবনার নাজিরগঞ্জ রুটে দুটি ছোট ফেরি এবং ইজারাদারের মাধ্যমে দুটি লঞ্চ চলাচল করে। কিন্তু পদ্মা নদীর তীব্র স্রোতের কারণে ১৭ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার থেকে ফেরিগুলো স্রোতের বিপরীতে চলতে পারছে না। তবে যাত্রী পারাপারে স্রোতের মধ্যে ঝুঁকি নিয়েই চলছে লঞ্চ ও ইঞ্জিনচালিত ট্রলার।

রাজবাড়ীর ধাওয়াপাড়ার জৌকুড়া-নাজিরগঞ্জ ফেরিঘাটের ইজারাদারের ম্যানেজার মো: সাহেব আলী বলেন, তীব্র স্রোতের কারণে জৌকুড়া-নাজিরগঞ্জ রুটে কয়েকদিন ফেরি চলাচল প্রায় বন্ধ রয়েছে।

দুটি জেলার গুরুত্বপূর্ণ এ নৌরুটে নতুন এবং বড় ফেরি প্রয়োজন। কিন্তু যথাযথ কর্তৃপক্ষের কোনো মাথাব্যথা নেই এ নিয়ে।

রাজবাড়ী জৌকুড়া ও পাবনার নাজিরগঞ্জ নৌরুটে বিগত ১৮ বছর ধরে দুটি ইউটিলিটি ফেরি দিয়ে তারা ইজারার মাধ্যমে যানবাহন পারাপার করে আসছে। তবে ফেরি দুটি অনেক পুরাতন। ফলে চলতি বছর পদ্মায় দ্বিতীয় দফায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধির কারণে ওই ফেরি দুটি যানবাহন লোড করে ¯্রােতের বিপরীতে কিছুতেই ঘাটে যেতে পারছে না। পানি ও স্রোত কিছুটা কমলে পুনরায় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক করা হবে। এছাড়া এ রুটে পারাপার হওয়া যানাবহনগুলো এখন লালন শাহ সেতু ব্যবহার করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.