দুর্গাপুরে কেজি দরে সরকারি প্রাথমিকের ১২৫ কেজি বই বিক্রি

রিফাত আহমেদ রাসেল, দুর্গাপুর (নেত্রকোণা): নেত্রকোনার দুর্গাপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরকারি বই বিক্রির অভিযোগ উঠেছে । পৌরসভাস্থ ৭ নং বিরিশিরির দক্ষিণ ভবানীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: রফিকুল ইসলাম সোমবার দুপুরে ২০১৭,১৮,১৯,২০ শিক্ষাবর্ষের সরকারি বই স্থানীয় এক হকারের কাছে বিক্রি করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিদ্যালয়ে ১ম, ২য় সহ সকল শ্রেণির নানা রকম নতুন পুরাতন প্রায় ১ শত ২৫ কেজি সরকারি বই ও শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ১ শত ১৫ কেজি খাতা প্রধান শিক্ষক হকারের কাছে প্রতি কেজি বই ৮ টাকা ও খাতা ৯ টা দরে বিক্রিয় করে। বই গুলো নিয়ে হকার দোকানে যাওয়ার পথে স্থানীয়রা হকারকে আটকে। পরে তারা জানতে পারে প্রধান শিক্ষক মো: রফিকুল ইসলামই সরকারী বইগুলো অবৈধভাবে বিক্রি করেছে।

বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হলে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে হকারের কাছ থেকে প্রাথমিক শাখার সরকারী বই জব্দ করে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে নিয়ে আসেন।

স্থানীয় বাসিন্দা জাহাগীর আলম জানায়, শুধু বই নয় আরো গত তিন মাস পূর্বে নতুন প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদানের পর থেকে বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলামের সাথে যোগসাজসে প্রধান শিক্ষক মো: রফিকুল ইসলাম বিদ্যালয়ের চত্বরের গাছ বিক্রি থেকে শুরু করে নানা রকম দুর্নীতি করে আসছে। আর শিক্ষার্থীরা বই চাইলেই বলে বই নাই। কিন্তু বিক্রির জন্য বই ঠিকই থাকে।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে বইগুলো পরে আছে। এজন্য কক্ষটি সবসময় বন্ধ করে রাখতে হয়। তাই পুরনো বই গুলো বিদ্যালয় থেকে সরানো জন্যই বই আর খাতাগুলো বিক্রি করেছি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, সরকারী বই বিক্রয় করার কোনো নিয়ম বা অনুমতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের নেই। আর দক্ষিণ ভবানীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক যে কাজটি করেছে তা পুরোপুরি অন্যায়। তার বিরুদ্ধে জেলা কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

error: প্রিয়জন; আপনি লেখা কপি করতে চাচ্ছেন!! অনুগ্রহ করে তা থেকে বিরত থাকুন। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Facebook