জার্মানিতে গুপ্তচরবৃত্তি : ভারতীয় দম্পতির শাস্তি

গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে ভারতীয় দম্পতিকে শাস্তি দিয়েছে জার্মানির আদালত। জার্মানিতে বসবাসকারী কাশ্মিরি ও শিখদের সম্পর্কে খবরাখবর ভারতীয় গোয়ন্দা সংস্থাকে সরবরাহ করতেন তারা।

জার্মানিতে বসে তারা ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালিসিস উইং বা র-কে খবরাখবর সরবরাহ করতেন। প্রধাণত, কাশ্মিরি ও শিখদের গতিবিধি ও কার্যকলাপের খবর দিতেন ওই দম্পতি{ ফ্রাঙ্কফুর্টের আদালত ৫০ বছর বয়সী এস মনমোহন ও তার স্ত্রী ৫১বছরের কানওয়ালজিতকে সাজা দিয়েছে। মনমোহনকে বেআইনি চরবৃত্তির অপরাধে দেড় বছর জেলে থাকতে হবে। কানওয়ালজিতের অর্থদণ্ড হয়েছে। তাকে এক শ’ আশি দিনের আয় জরিমানা হিসাবে দিতে হবে। সেই অর্থ যাবে এই ধরনের কাজ বন্ধ করার অভিযানে।

মনমোহনের চরবৃত্তি শুরু হয়েছিল ২০১৫ থেকে। কানওয়ালজিত তার দুবছর পর থেকে এই কাজ শুরু করেন। এই দম্পতি র-এর কাছ থেকে ৭ হাজার ইউরো পেয়েছে। মামলার শুনানির সময়ই দম্পতি স্বীকার করে নেয়, তারা নিয়মিত র-কে তথ্য দিত।

অতীতে ভারত একাধিকবার শিখদের ব্যাপারে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে। শিখরা ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে গোলমাল করতে পারে বলেও তাদের সন্দেহ ছিল। ভারতের আশঙ্কা, কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা মদত পাচ্ছে বিদেশ থেকে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে ব্রিটেন ও ইটালির পরেই শিখদের সংখ্যা সব থেকে বেশি জার্মানিতে।
সূত্র : ডয়চে ভেল

error: প্রিয়জন; আপনি লেখা কপি করতে চাচ্ছেন!! অনুগ্রহ করে তা থেকে বিরত থাকুন। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Facebook