ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে গেলে যেসব সতর্কতা প্রয়োজন

কিডনি রোগীদের অনেক শারীরিক দুর্বলতা ও অন্যান্য উপসর্গ দেখা যায়। বিশেষ করে রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ বেড়ে পা ফুলে যায়।

অসহনীয় ব্যথায় পা নাড়ানোও কষ্টকর হয়ে যায়।
বিশেষজ্ঞরা বলেন, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাস এবং অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রার কারণেই রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ বাড়ে। যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করবেন পায়ের ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা :
• প্রথমেই খাবার নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। রান্নায় তেল মশলা কম দিন। এছাড়া বড় মাছ, রেড মিট, দুধ, বেকন, কলিজা, চিনি খাওয়া কমিয়ে দিন
• পিনাট বাটার, ফল, শাকসবজি বেশি পরিমাণে খান। শস্যদানা, রুটি, আলু খেতে পারেন তবে পরিমিত
• দুধ খেলে ফ্যাট ফ্রি
• দুধ-চিনি ছাড়া ব্ল্যাক কফি ও দুধ চায়ের পরিবর্তে গ্রিন টি পান করুন
• ওজন অবশ্যই নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে
• খাদ্য তালিকায় কমলা, লেবু ও আঙুরের মতো ভিটামিন সি-সমৃদ্ধ ফল রাখুন
• রাতে ঘুমানোর আগে ২ টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগার আধা কাপ পানির সঙ্গে মিশিয়ে পান করলে উপকার পাওয়া যায়
• পায়ের নিচে বালিশ রেখে ঘুমালেও পায়ের ব্যথায় কিছুটা আরাম পাওয়া যায়
• নিয়মিত ব্যায়াম করুন।

রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, হৃদরোগ থাকলে ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে যায়। ফলে নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে চলতে হবে।