1. kaium.hrd@gmail.com : ময়মনসিংহ লাইভ ডেস্ক : ময়মনসিংহ লাইভ ডেস্ক
আমেরিকায় স্কলারশীপ পেয়েছেন ময়মনসিংহের ছেলে অলক
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন

আমেরিকায় স্কলারশীপ পেয়েছেন ময়মনসিংহের ছেলে অলক

তানিউল করিম জীম, বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২৪
ALOK Pandit

ফুল ফান্ডেড স্কলারশিপে ওকলাহোমা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে একই সাথে মাস্টার্স ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ পেয়েছেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) শিক্ষার্থী অলক পন্ডিত। আগামী ১৬ জানুয়ারি থেকে তিনি ওকলাহোমা স্টেট ইউনিভার্সিটির বায়োসিস্টেমস এন্ড এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে পড়াশোনার পাশাপাশি ইরিগেশন রিসার্চ ল্যাবরেটরিতে গবেষণা সহকারী হিসেবে কাজ করবেন। উচ্চ শিক্ষা অর্জনের ইচ্ছে, স্কলারশিপ পাওয়া ও গবেষক হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে অলকের সাথে কথা বলেছেন তানিউল করিম জীম।

ময়মনসিংহের নেত্রকোনার সদর উপজেলার সতরশ্রী গ্রামের ভজন চন্দ্র পন্ডিত ও অপর্ণা রানী পন্ডিতের ছেলে অলক পন্ডিত। তবে বেড়ে উঠা ময়মনসিংহ শহরেই। ময়মনসিংহের মুকুল নিকেতন স্কুলের পর রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের গন্ডি পেরিয়ে ২০১৭ সালে ভর্তি হোন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদে বিএসসি ইন এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি অর্জনের জন্যে। প্রথম দিকে তারও সবার মতো বিসিএস পরীক্ষা দিয়ে দেশে ভালো সরকারি চাকরি করার ইচ্ছে ছিলো। কিন্তু যখন তিনি ৩ বর্ষের ২য় সেমিস্টারে উঠেন, তখন তিনি ইরিগেশন এন্ড ওয়াটার ম্যানেজমেন্ট বিভাগ পছন্দ করেন পড়াশোনার জন্যে। ইরিগেশনের ক্লাসগুলো তার ভালো লাগতে থাকে। এই ভালো লাগা থেকেই যখন তিনি ৪র্থ বর্ষে উঠলেন, তখন তার মনে হলো এই ইরিগেশনের বিষয়গুলো নিয়ে আরও কিছু করা দরকার। তাই তিনি এগ্রিকালচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইরিগেশন ওয়াটার নিয়ে কাজ করছেন বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের এমন প্রফেসরদেরকে মেইল করতে থাকেন। তবে বেশিরভাগ প্রফেসরস তাকে উত্তরে বলেছিলেন আগে অনার্স শেষ করে আইইএলটিএস এ স্কোর করে যোগাযোগ করতে। পরবর্তীতে অনার্সের শেষ দিকে এসে তিনি শুধু দুটি বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচন করেন। পরে আমেরিকার ওকলাহোমা স্টেট ইউনিভার্সিটির একজন প্রফেসরসকে তার সাত সেমিস্টারের ফলাফল দিয়ে মেইল করেন এবং ওই প্রফেসরস তার সাথে মিটিং করতে আগ্রহী হোন। মিটিংয়ের পর তিনি অলককে জানান যে, অনার্স শেষ হলেই আইইএলটিএস দিয়ে জানাতে। প্রফেসরের কথা মতো অনার্স শেষ করে আইইএলটিএস দিয়ে স্কোর ৭ পান অলক। তারপর এ বছরের জুলাই মাসে আমেরিকার ওকলাহোমা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে আবেদন করেন। আগস্ট মাস রিভিউ চলে। সেপ্টেম্বর মাসে তার অফার লেটার চলে আসে এবং অলকের সুপারভাইজার তার রিসার্চ প্রজেক্টে রিসার্চ সহকারী হিসেবে অলককে নিয়োগ দেয়। অলক পন্ডিতের ওকলাহোমা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনার সকল খরচ, শতভাগ হেলথ ইন্সুরেন্স বহন করবেন তার সুপারভাইজার। পাশাপাশি তিনি ল্যাবরেটরিতে কাজের জন্যে একটি মাসিক বেতনও পাবেন বলে জানান অলক।

আইইএলটিএস এর প্রস্তুতি নিয়ে অলক পন্ডিত জানান, আমি খুব কম সময় পেয়েছিলাম। মাত্র ৭ দিন সময় পেয়েছিলাম পরীক্ষার প্রস্তুতির। আমার মূল লক্ষ্য ছিলো রাইটিং ও স্পিকিংয়ে ভালো করা। সেটার জন্যে বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেল ফোলো করতাম। তবে আইইএলটিএস এর জন্যে আলাদা কোনো বই কেনা হয়নি। অনলাইনেই প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। সবশেষে সন্তোষজনক স্কোর হিসেবে ৭ অর্জন করি। তবে আমাকে পুরো সময়ে সাহায্যে করেছেন বাকৃবির ইরিগেশন এন্ড ওয়াটার ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক ড. জি. এম. মোস্তফা আমীন এবং সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. তৌহিদুল ইসলাম।

প্রফেসরের সাথে মিটিংয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, একাডেমিক বিষয় নিয়ে আমাকে কিছুই জিজ্ঞেস করা হয়নি। সর্বপ্রথম নিজের পরিচয় জানতে চায়। এরপরে প্রশ্ন করেন অনার্সে আমার কোনো পাবলিকেশন আছে কিনা? থাকলে ভালো আর তা থাকলে অনার্সে আমি কি নিয়ে কাজ করেছি। সেখানে আমার কি অবদান ছিল, আমি আরও সেটা নিয়ে কি গবেষণা করতে চাই সেটা শুনতে চান তিনি। পরে আমার প্রফেসর কোন কোন বিষয় নিয়ে কাজ করেছেন, তার পাবলিকেশনগুলো আমি পড়ে কি কি ধারণা পেয়েছি জিজ্ঞেস করেন। এছাড়া ডিগ্রী নেওয়ার পরে আমি একাডেমিকে কাজ করতে চাই নাকি কমার্শিয়াল ফার্মে কাজ করতে চাই জিজ্ঞেস করেছিলেন। শেষে তিনি জিজ্ঞেস করেছিলেন আমার লক্ষ্য কি এবং ১০ বছর পর নিজেকে কোথায় দেখতে চাই??

ইরিগেশন রিসার্স ল্যাবরেটরিতে গবেষণা সহকারী হিসেবে কাজের বিষয়ে অলক জানান, আমি মূলত সেখানে উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে ওয়াটার কনজারভেশন নিয়ে কাজ করবো। যদিও আমি বাকৃবিতে ওয়াটার কনজারভেশন নিয়ে কাজ করেছি। তবে এখন মেশিন লার্নিংয়ের মাধ্যমে প্রযুক্তিকে উন্নত করা হবে। এজন্যে আমাকে অফার লেটার পাওয়ার পর পর প্রোগ্রামিং, এক্সেলের বিভিন্ন কোর্স অফার করেন আমার সুপারভাইজার। যা আমি সম্পূর্ণ করি করে করে তাকে জানাতাম। আমি যে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছি সেটি সারা বিশ্বের মধ্যে এগ্রিকালচার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে এ টপ ১০ এর মধ্যে আছে। এছাড়া ইরিগেশন রিসার্চ ল্যাবরেটরিতে আমি যে গ্রুপে কাজ করবো ওয়াটার রিলেটেড এটা বিশ্বের টপ পাঁচটা গ্রুপের মধ্যে একটি।

ভবিষ্যত চিন্তার বিষয়ে অলক জানান, আমি ভালো গবেষক হতে চাই। আমি বিশ্ব সেরাদের সাথে কাজ করে শিখতে চাই। আমার লব্ধ জ্ঞান দ্বারা বিশ্ব ও দেশের মানুষের উপকারে অবদান রাখতে চাই। পিএইচডি শেষে দেশে কোনো রিসার্চ প্রতিষ্ঠানে সুয়োগ পেলে দেশের জন্যে কাজ করতে চাই। আমার গবেষণার বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করে সেগুলো ভালো ভালো জার্নালে পাবলিশ করতে চাই।

যারা উচ্চ শিক্ষায় বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আগ্রহী তাদের উদ্দেশ্য অলক বলেন, ইউটিউবে প্রচুর টিউটোরিয়াল দেখতাম। অনলাইন থেকেই আমি বেশি জেনেছি। সবথেকে বেশি হেল্প করেছে ফেসবুকের একটা গ্রুপ নেক্সটপ ইউএসএ গ্রুপ। সেখান অনেক অপরচুনিটিস ইনফর্মেশন ও বিভিন্ন পার্সোনালিটি আপলোড করা হতো। আমার আগ্রহ ছিল আমি চেষ্টা করেছি নিজে নিজে। সবার জন্য পরামর্শ থাকবে নিজের যে সাবজেক্ট সেই সাবজেক্টের জন্য কি কি বিশ্ববিদ্যালয় আছে ইউএসএতে সেগুলো খুঁজে বের করা। নিজের রিসার্চ অনুযায়ী যে প্রফেসররা আছেন তাদের একটা লিস্ট করা এবং সে অনুযায়ী রিসার্চ প্রপোজাল দিয়ে তাদের ইমেইল করা।

নিউজটি শেয়ার করতে নিচের বাটনগুলোতে চাপ দিন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
Mymensingh-IT-Park-Advert
Advert-370
Advert mymensingh live
©MymensinghLive
প্রযুক্তি সহায়তা: ময়মনসিংহ আইটি পার্ক