অস্ট্রেলিয়ার রানের পাহাড়ে চাপা পড়লো শ্রীলঙ্কা

ক্যানবেরা টেস্ট জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কাকে ৫১৬ রানের বিশাল টার্গেট দিলো স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। জবাবে তৃতীয় দিন শেষে বিনা উইকেটে ১৭ রান করেছে লঙ্কানরা। ম্যাচ জয়ের জন্য বাকি দুই দিনে আরো ৪৯৯ রান করতে হবে লঙ্কানদের। অপরদিকে, প্রতিপক্ষের ১০ উইকেট নিলেই দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট জিতে নিবে অস্ট্রেলিয়া। প্রথম টেস্ট জিতে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে অসিরা।

প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার ৫৩৪ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ৩ উইকেটে ১২৩ রান করেছিল শ্রীলঙ্কা। ৭ উইকেট হাতে নিয়ে তখনো ৪১১ রানে পিছিয়ে ছিলো লঙ্কানরা। তবে তৃতীয় দিন অস্ট্রেলিয়া বোলারদের সামনে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেনি শ্রীলঙ্কা ব্যাটসম্যানরা।

দুই ওপেনার করুনারত্নের ৫৯ ও থিরিমান্নের ৪১ রানের পর শ্রীলঙ্কার মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা ছিল চোখে পড়ার মত। কোনো ব্যাটসম্যানই ৩০ রানের কোটা পেরোতে পারেনি। অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্কের সাথে দলের অন্যান্য বোলারদের তোপে ২১৫ রানেই গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। এতে ফলো-অনে পড়ে তারা। কিন্তু শ্রীলঙ্কাকে ফলো-অন না করিয়ে নিজেরাই ব্যাটিং করে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম ইনিংসে করুনারত্নে-থিরিমান্নের পর শ্রীলঙ্কার পক্ষে কুশল পেরেরা ২৯, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা-উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকবেলা ২৫ রান করে করেন। মাথায় আঘাত পেরে ৪৬ রানে আহত অবসর নিয়েছিলেন করুনারত্নে। তৃতীয় দিন ব্যাট হাতে নেমে ৫৯ রানে থামেন তিনি।

বল হাতে অস্ট্রেলিয়ার স্টার্ক ৫৪ রানে ৫ উইকেট নেন। ৫১ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে দশমবারের মত পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নিলেন স্টার্ক। এছাড়া স্পিনার নাথান লিঁও ২টি উইকেট নেন।

শ্রীলঙ্কাকে ফলো-অন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে ৩৭ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে অস্ট্রেলিয়া। মার্কাস হ্যারিস ১৪, জো বার্নস ৯ ও মার্নাস লাবুশেনে ৪ রান করে থেমে যান। এরপর পরিস্থিতি সামাল দিতে সর্তকতার সাথে ব্যাট চালান উসমান খাজা ও ট্রাভিস হেড। সময় গড়ানেরা সাথে সাথে স্বাচ্ছন্দ্যে রান তোলার কাজটা ভালোভাবে সেরেছেন খাজা ও হেড। সেঞ্চুরি করেছেন উসমান খাজা।

টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরি (১০৯*) তুলে খাজা ও পঞ্চম হাফ-সেঞ্চুরির(৫৯*) স্বাদ পান হেড। দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান খাজার সেঞ্চুরি ও হেডের হাফ-সেঞ্চুরিতে দলের স্কোর শক্তপোক্ত অবস্থায় পৌঁছানোর পর দ্বিতীয় ইনিংস ৩ উইকেটে ১৯৬ রানে ঘোষনা করে দেয় অস্ট্রেলিয়া। ফলে ম্যাচ জয়ের জন্য ৫১৬ রানের টার্গেট দেয় পায় শ্রীলঙ্কা।

সেই লক্ষ্যে দিন শেষে ৬ ওভার ব্যাট করে কোনো উইকেট হারায়নি শ্রীলঙ্কা। করুনারত্নে ও থিরিমান্নে ৮ রান করেন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Sidebar not configured yet. You can place widgets by navigating to WordPress Appearance > Widgets.

scroll to top